• Blogtog

আপনি কি জানেন ভারতে রবিবার ছুটির জন্যে চলেছিল দীর্ঘ সংগ্রাম




রবি মানে সূর্য আবার রবি বলতে আমাদের বাঙালির গর্ব রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ও বটে। কিন্তু আরেক রবি ও কিন্তু আমাদের ভীষনই প্রিয়। যাকে মনে করলেই সমস্ত ক্লান্তি কেটে যায়।হ্যাঁ, ঠিক ধরেছেন রবিবার।


সাধারণত আমরা বলে থাকি রবিবার সপ্তাহের শুরুর দিন। আবার অনেকের মতে রবিবার হলো সপ্তাহের শেষতম দিন। মানে একটু ভেবে দেখলেই বোঝা যায় ইংরেজিতেও বলা হয় Weekend।


 ইহুদিদের ধর্মীয় বর্ষপঞ্জিকা অনুসারে এবং কিছু খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের কাছে এটা সপ্তাহের প্রথম দিন। কারণ তাঁদের কাছে শনিবার হলো সপ্তাহের শেষ দিন এবং প্রার্থণা দিবস। পাশ্চাত্যের বিভিন্ন দেশে রবিবারকে সপ্তাহের শেষ দিন গণ্য করা হয়। এদিন খ্রিস্টানদের ক্যাথলিক গির্জায় সাপ্তাহিক ধর্মীয় উপাসনা অনুষ্ঠান হয়। কারণ বাইবেলের বর্ণনানুযায়ী রবিবার হলো মৃত্যুর পর যিশুর প্রত্যাবর্তনের দিবস।


সে শুরু হোক বা শেষ হোক তা মুখ্য বিষয় নয়, আসলে আনন্দের কথা হলো, ছুটি। বিশ্বের বেশিরভাগ দেশেই রবিবার হলো ছুটির দিন। তবে ছুটির তো বিভিন্ন দিন হয় যেমন - National holidays আরকি, তার মধ্যেও রবিবারের ছুটির মধ্যে এক আলাদাই আনন্দ রয়েছে। তবে আমাদের দেশে এই ছুটির পেছনে এক বেশ সংগ্রামের ইতিহাস ইতিহাস রয়েছে বৈকি!


ব্রিটিশ শাসনকালে তৎকালীন ভারতবর্ষের শ্রমিকদের সপ্তাহের সাত দিনই কাজ করতে হতো। সেই সময় শ্রমিক নেতা নারায়ণ মেঘাজী লোখাণ্ডে শাসক শ্রেণীর কাছে সপ্তাহের একদিন ছুটির আর্জি রাখেন। তবে ব্রিটিশ সরকার কর্মীদের সপ্তাহের একদিন করে মাসের চারদিনের জন্য বরাদ্দ টাকা শুধু শুধু দিতে কোনোভাবেই রাজি হতে চায়নি। ফলে ৮ বছরের দীর্ঘ সংগ্রামের পর অবশেষে কর্মীদের বরাদ্দের অর্ধের টাকা কেটে নেওয়ার চুক্তি করে রবিবার কে ছুটির দিন ঘোষণা করা হয়।

  • Facebook
  • Twitter
  • YouTube
  • Instagram

©2019 by Blogtog.