• Blogtog

ভারতের IPL প্রজন্ম হেরে গেল নিউজিল্যান্ডের দেশের হয়ে লড়াইয়ের কাছে


আইপিএলের চক্করে ফেঁসে গেল একটা প্রজন্ম। গুচ্ছের স্পনসর,স্বপ্লবসনা সুন্দরীর সাথে নৈশভোজ ,পার্টি আর ধুম ধাড়াক্কা ছয়-চার,এটাকেই ক্রিকেট ভাবতে শুরু করল সবাই।

১৯৮৩ থেকে ২০১৯—প্রায় চারটে দশক,একটা দর্শনের পালটে যাওয়ার জন্য যথেষ্ট সময়। সাফল্যের হাত ধরেই জনপ্রিয়তা আসে। কপিলস ডেভিলরা যেটা করেছিল। সেই থেকেই রঞ্জি সিংজির রয়্যাল প্লে টাইপ খেলাটা আম জনতার হতে শুরু করল। সাবেকি টেস্টের পাশাপাশি আরো জনপ্রিয় হতে থাকল একদিনের ক্রিকেট। উপমহাদেশের ক্রীড়া নৈপুন্যের তালিকায় আর তেমন কিছু না থাকায় ক্রিকেটই হয়ে উঠল ওনলি স্পোর্টস। এইভাবে উপমহাদেশে জাকিয়ে বসল ক্রিকেট।


৮৭তে উপমহাদেশেই বসল বিশ্বকাপের আসর। পঞ্চাশ ওভারের বিশ্বকাপের সেফিফাইনাল খেলেছিল ভারত আর পাকিস্তান। ৯২তে আবার পাকিস্তান চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর যখন ৯৬তে আবার উপমহাদেশে বিশ্বকাপ হল,তখন তার গ্ল্যামার বেড়েছে অনেকটাই।


গ্ল্যামারের সাথে যোগ হল বিপনন কৌশল। বিপুল দর্শক তাই খেলাটাকেই পণ্যের মতন ব্যবহার শুরু হল। তবুও তখন সচিনের স্কয়ার কাট, সৌরভের বাপি বাড়ি যা দেখে বিছানা তোলপাড় করে ফেলতে চিয়ার্স লিডারকে নাচতে হত না। কিন্তু চোরা পথে নারী, অর্থ আর বেটিং ঢুকতে শুরু করল বাইশ গজে।


ক্রোনিয়ের মতন সবাই বিবেকের তাড়নায় ভুগত না। ২০০৩এ সৌরভের টিম ইন্ডিয়া বেটিং আর ব্যর্থতার চিহ্ন প্রায় মুছে দিতে পেরেছিল। আর ২০১১তে ধোনির হাতে কাপ ওঠল,ততদিনে ক্রিকেটের ভাগ্যবিধাতা হয়ে গেছে ইন্ডিয়া। সেটাই কাল হল। শো বিজ হয়ে গেল ক্রিকেট। আইপিএলের চক্করে ফেঁসে গেল একটা প্রজন্ম। গুচ্ছের স্পনসর,স্বপ্লবসনা সুন্দরীর সাথে নৈশভোজ ,পার্টি আর ধুম ধাড়াক্কা ছয়-চার,এটাকেই ক্রিকেট ভাবতে শুরু করল সবাই।


আজ এই ২০১৯র সেমি ফাইনালে ভারতকে হারতে দেখে কষ্ট পাওয়ার কিছু নেই। দলটায় এমন একটা গ্রুপ আছে যারা আইপিএলের প্রোডাক্ট।


হার্দিক-পন্থ-কেদার-কার্তিক-চাহাল, এরা তাই হেরে গেল রস টেলরের প্রজন্মের কাছে যারা ক্রিকেট বলতে বুঝত দরকারে দাঁত চেপে ক্রিজে পরে থাকা। ওই ঘরানাটা নষ্ট হয়ে যায়নি। এটাই ক্রিকেটের জয়।


#IPL #ICCCricketWorldCup #IndiaVsNewZealand #Semifinal

0 views
  • Facebook
  • Twitter
  • YouTube
  • Instagram

©2019 by Blogtog.