• Blogtog

Rome wasn't built in a day; Nor was Flipkart | সৌরদীপ বর্দ্ধন



সৌরদীপ বর্দ্ধন


ধরুন এই মূহুর্তে আপনার পছন্দ হল কোনো টিশার্ট কিংবা কোনো স্মার্টফোন বা কাছের মানুষের জন্য পছন্দের উপহার; এরমধ্যে যেকোনোটি পেতেই হাত চলে যাবে মোবাইল কিংবা ল্যাপটপে,খুলে যাবে কোনো ই-কর্মাস সংস্থার ওয়েবপেজ আর মাউসের এক ক্লিকেই হয়ে যাবে অর্ডার।তারপর মাত্র কয়েকদিনের অপেক্ষা,বাড়িতে বসেই পেয়ে যাবেন আপনার কাঙ্ক্ষিত দ্রব্যগুলি।আমরা বর্তমানে জীবনের প্রায় প্রতিটি ক্ষেত্রেই এই ইকমার্স সংস্থাগুলির ওপর নির্ভরশীল হয়ে পড়েছি।ভারতবর্ষে এই ই-কমার্স সংস্থাগুলির মধ্যে সবার আগে যে নামটি চোখে পড়বে,তা হল Flipkart যা ফলশ্রুতি দুজন মানুষের স্বপ্নউড়ানের।মাত্র ১০ বছরের মধ্যেই সেই স্বপ্নটা গলি থেকে আজ রাজপথে।


শুরুটা হয়েছিল Delhi IIT তে যখন সচীন বানসাল নামক এক যুবকের সাথে আলাপ হয়ে যায় বিনি বানসাল নামক আরেক যুবকের।ঘটনাচক্রে দুজনের বাড়িই চন্ডীগড় আর দুজনকারই পরিবার ব্যবসার সাথে যুক্ত।খুব স্বাভাবিকভাবেই আলাপ পরিণত হয় বন্ধুত্বে।কম্পিউটার সায়েন্সে গ্রাজুয়েশন শেষে দুজনে একসাথে চাকরি পান পৃথিবীর সবচেয়ে বড় ই কমার্স সংস্থা Amazon এ।কিন্তু কলেজলাইফের সেই আইডিয়াটা চাপা পড়ে যায়নি কারোই।নিজে থেকে কিছু করবার বাসনাটা কুঁড়ে কু্ঁড়ে খাচ্ছিল তাদের।এরপরই একদিন দুজনেই নিয়ে ফেললেন এক চরম সিদ্ধান্ত; ছেড়ে দিলেন পৃথিবীর অন্যতম বৃহৎ সংস্থার চাকরিটা।২০০৭ সালের ৫ই সেপ্টেম্বর খুলে ফেললেন তাদের নিজেদের সংস্থা,নাম দিলেন 'Flipkart'.প্রাথমিক ভাবে বই দিয়েই শুরু করলেন।সচীন আর বিনি নিজেরাই বেড়িয়ে পরতেন বই ডেলিভারি করতে আর সেইসাথে চলত লিফলেট বিলি।এরমাঝেই একটা জিনিস তারা লক্ষ করলেন যে অন্যান্য সংস্থাগুলি তাদের প্রোডাক্ট অর্ডার করবার আগেই পেমেন্ট নিয়ে নিচ্ছে।এতে অসুবিধা হচ্ছে দুটি;প্রথমত আগে থেকে পেমেন্ট করবার পর প্রোডাক্ট নিয়ে যথেষ্ট অবিশ্বাস থেকে যায় আর দ্বিতীয়ত না যাচাই করে জিনিস কিনবার পক্ষপাতী প্রায় কেউই নন।কাজেই বাকি ইকমার্স সংস্থাগুলির বিক্রির পরিমাণ তথৈবচ।তবে খুব শীঘ্রই সচীন আর বিনি এর সমাধান করে ফেলেন।

বিনি বানসাল

Flipkart ই ভারতে প্রথম চালু করল Cash on Delivery যাতে প্রথমে জিনিস অর্ডার করবেন কাস্টমার, সেটা বাড়িতে পৌঁছানোর পর টাকা নিয়ে নেওয়া হবে।কথায় আছে বুদ্ধি আর পরিশ্রমের মেলবন্ধন যেখানে ঘটে সেখানে কিছু অসম্ভব থাকে না।হলও তাই।২০০৮-০৯ সালেই তাদের বিক্রি ছাড়াল ৪০ মিলিয়ন! চমকে উঠলেন বিনিয়োগকারীর। না,এরপর আর ফিরে তাকাতে হয়নি।২০১৪ সালে Myntra এবং আরও কিছু সংস্থাকে কিনে নিলেন তারা। ২০১৬ সালেই অর্থাৎ ৯ বছরের মধ্যেই কম্পানি সেল করে ফেলেছিল ৪০ মিলিয়নের বেশি।আজ ১৫ হাজারেরও বেশি কর্মী রয়েছে সংস্থায়। এ যেন এক রুপকথা! যাতে নায়ক রয়েছে, রয়েছে পরিশ্রম আর সততা,বুদ্ধি আর সঠিক পরিকল্পনার সঠিক অনুপাত।

শচীন বানসাল

আজ Flipkart শুধু একটি ই-কমার্স সংস্থা নয়, এর সাথে মিশে আছে আমাদের নির্ভরশীলতা আর ভারতবর্ষের সংস্থা হয়ে বিশ্বের দরবারে নিজেদের সুপ্রতিষ্ঠিত করার গৌরব।


0 views
  • Facebook
  • Twitter
  • YouTube
  • Instagram

©2019 by Blogtog.